অনাদৃত সঙ্গম

দীঘির জলে আলতো ছোঁয়া

নীলাভো আঁচে লালচে আগুনের মত,

ছুঁয়েছি তোমায় কোমল করে-

এলো তোমার হাসিতে একটু ভেজা

অধরসিক্ত টগরের রক্তিমাভার মত,

ছুঁয়েছ আমায় রঙ্গিন করে-

আলিঙ্গনের তীব্র আশে

একাকার হবার ঝড়ো উন্মত্ততায়,

উড়ে আসি অনাদৃত-

এইতো তুমি হাতের কাছেই

ছুটে যাই আবারিত উল্লাসী পাগল

আমি আবারো অবুঝ-

অস্পৃশ্য আঁচড় আমার পাঁজরে

তোমার চোখের মুক্তোগোছা বলে অব্যক্ততা,

মূর্ছা আমি অপাংক্তেয়-

দেয়ালের ওপারে তুমি একটু ছুঁয়ে যাও

ছুঁতে গিয়ে, মিলিয়ে যাবো বলে,

হয়ে যাই অবাঞ্ছিত-

অঙ্গুলীহেলনে গড়িয়ে দিলে

অবহেলিত গোলকের মত,

দূরত্বই অমোঘ নিয়তি।

Advertisements
This entry was posted in Uncategorized. Bookmark the permalink.

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s